সকাল ১০:০১, সোমবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম:
★★জাহাজের নাবিক কে ছুরি মেরে আঘাত★★ শীতলক্ষ্যা-ধলেশ্বরী : জাহাজের এলোপাতাড়ি নোঙরে ঝুঁকিতে নৌপথ★★★ তারিখঃ ২৭ নভেম্বর ২০২২ খ্রিঃ রোজ রবিবার, সময় সকাল ৬.০১ মিনিট হইতে সারাদেশে নৌ পথে সকল কার্গো, বাল্কহেড এর নৌ শ্রমিকরা অবিরাম কর্মবিরতি পালনের জন্যে,,,, মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। নারায়ণগঞ্জে ডকইয়ার্ডে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে জাহাজ শ্রমিকের মৃত্যু মুন্সীগঞ্জে ক্রেনের ধাক্কায় প্রাণ গেল জাহাজ শ্রমিকের ৫০ জেলেকে কোস্টগার্ড ডিজি’র জীবনরক্ষাকারী উপকরণ বিতরন চরপাড়া ঘাটের ইজারা স্থগিতের আশ্বাসে ধর্মঘট প্রত্যাহার ডেক ফেটে পশুর নদীর চরে আটকা কয়লা বোঝাই কার্গো বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ, আরও শক্তিশালী হতে পারে,,,,, পার্কিরচর এসে যারা এংকর করবেন অবশ্যই কর্ণফুলীর মুখের ১ নাম্বার সবুজ বয়ার ভিতরে করবেন,,,, রাতের আঁধারে সুরমা নদীতে,,,, ডিজি শিপিং কর্তৃক অনুমোদিত,,,, আবারও সুন্দরবনের হরিণের মাংসসহ চোরা শিকারি আটক ৯৩ বছর বয়সী ঐতিহ্যবাহী রকেট স্টিমার মাহসুদের ছুটে চলা ; ❌ বয়কট চরপাড়া ঘাট ❌ রামপালের কয়লা নিয়ে বিদেশি জাহাজ মোংলায়, চলছে খালাসের কাজ ১২ বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি আশুগঞ্জ নৌবন্দরে বিআইডব্লিউটিএর নাম ভাঙ্গিয়ে নদীতে রাতের আঁধারে নঙ্গর করা জাহাজ থেকে এই রশিদের মাধ্যমে তারা চাঁদাবাজি করে বেড়াচ্ছে! বরিশাল-ঢাকা রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ ছাড়পত্রহীন জাহাজ, পণ্য পরিবহন নৌ রুটে বিশৃঙ্খলার আশংকা লঞ্চে হামলার প্রতিবাদে গতকাল বৃহস্পতিবার ভোর থেকে বরিশাল-ভোলা রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। সিরিয়াল বিহীন লাইটার জাহাজ চলাচল করায় নৌ-সেক্টরে বিশৃংখলার আশংকা অশান্ত নৌ শান্ত হবে কি? 👉ভোলায় ৫ কোটি টাকার কারেন্ট জাল জব্দ ঢাকা-বরিশাল রুটে লঞ্চের ছাদে যুবককে কু”পিয়ে হ’ত্যা মোংলায় জাহাজ থেকে পাচার করা ডিজেলসহ আটক ২ বাংলাদেশ আইন সহায়তা কেন্দ্র ফাউন্ডেশন (বাসক) এর (গভঃ রেজিঃ নং এস ১০৫৫৪/০৯) কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মোঃ আনিছুর রহমান মাস্টার । প্রতিনিয়ত বেড়েই চলছে নৌ পথে ডাকাতি। অতি-ভয়ানক ঝুকিপূর্ণ ঢাকা চট্টগ্রাম নৌ’রুট চাঁদপুরে মা ইলিশ সংরক্ষণ ২০২২ অভিযান পরির্দশন করলেন আইজিপি

ঘূর্ণিঝড়ের সময় বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের সমূদ্রবন্দরগুলোর জন্য এসব সংকেতের অর্থ-

মেরিন নিউজ ২৪ ডেস্ক (সংরক্ষিত) আবহাওয়া অধিদপ্তর আপডেটঃ বুধবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২২, ১১:৩৫ পিএম 67 বার পড়া হয়েছে

ঘূর্ণিঝড়ের সময় বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের ঘূর্ণিঝড় সতর্কতা কেন্দ্র থেকে সতর্কতা হিসাবে ১ থেকে ১১ পর্যন্ত সংকেত জারি করা হয়। আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী ১ নম্বর হচ্ছে দূরবর্তী সতর্ক সংকেত, ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত, ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত, ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত, ৫, ৬ ও ৭ বিপদ সংকেত, ৮, ৯ ও ১০ মহাবিপদ সংকেত এবং ১১ ঘূর্ণিঝড়ের প্রচণ্ডতার কারণে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন।

সমূদ্রবন্দরগুলোর জন্য এসব সংকেতের অর্থ-

১ নং দূরবর্তী সতর্ক সংকেতঃ
জাহাজ ছেড়ে যাওয়ার পর দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার সম্মুখীন হতে পারে। দূরবর্তী এলাকায় একটি ঝড়ো হাওয়ার অঞ্চল রয়েছে। এ সময় বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৬১ কিলোমিটার। ফলে সামুদ্রিক ঝড়ের সৃষ্টি হবে।

২ নং দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেতঃ
দূরে গভীর সাগরে একটি ঝড় সৃষ্টি হয়েছে। সেখানে বাতাসের একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২-৮৮ কিলোমিটার। বন্দর এখনই ঝড়ে কবলিত হবে না, তবে বন্দর ত্যাগকারী জাহাজ পথে বিপদে পড়তে পারে।

৩ নং স্থানীয় সতর্ক সংকেতঃ
বন্দর ও বন্দরে নোঙর করা জাহাজ গুলোর দুর্যোগ কবলিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। বন্দরে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে এবং ঘূর্ণি বাতাসের একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০-৫০ কিলোমিটার হতে পারে।

৪ নং স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেতঃ
বন্দর ঘূর্ণিঝড় কবলিত। বাতাসের সম্ভাব্য গতিবেগ ঘণ্টায় ৫১-৬১ কিলোমিটার। তবে ঘূর্ণিঝড়ের চূড়ান্ত প্রস্তুতি নেওয়ার মতো তেমন বিপজ্জনক সময় এখনও আসেনি।

৫ নং বিপদ সংকেতঃ
বন্দর ছোট বা মাঝারি তীব্রতর এক সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে পড়বে। ঝড়ে বাতাসের সর্বোচ্চ একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২-৮৮ কিলোমিটার। ঝড়টি বন্দরকে বাম দিকে রেখে উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

৬ নং বিপদ সংকেতঃ
বন্দর ছোট বা মাঝারি তীব্রতর এক সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে পড়বে। ঝড়ে বাতাসের সর্বোচ্চ একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২-৮৮ কিলোমিটার। ঝড়টি বন্দরকে ডান দিকে রেখে উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

৭ নং বিপদ সংকেতঃ
বন্দর ছোট বা মাঝারি তীব্রতর এক সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়বে। ঝড়ে বাতাসের সর্বোচ্চ একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২-৮৮ কিলোমিটার। ঝড়টি বন্দরের উপর বা এর নিকট দিয়ে উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

৮ নং মহাবিপদ সংকেতঃ
বন্দর প্রচণ্ড বা সর্বোচ্চ তীব্রতর ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়তে পারে। ঝড়ে বাতাসের সর্বোচ্চ একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৯ কিলোমিটার বা এর বেশি হতে পারে। প্রচণ্ড ঝড়টি বন্দরকে বাম দিকে রেখে উপকূল অতিক্রম করবে।

৯ নং মহাবিপদ সংকেতঃ
বন্দর প্রচণ্ড বা সর্বোচ্চ তীব্রতর এক সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়বে। ঝড়ে বাতাসের সর্বোচ্চ একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৯ কিলোমিটার বা এর বেশি হতে পারে। প্রচণ্ড ঝড়টি বন্দরকে ডান দিকে রেখে উপকূল অতিক্রম করবে।

১০ নং মহাবিপদ সংকেতঃ
বন্দর প্রচণ্ড বা সর্বোচ্চ তীব্রতর এক সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়বে। ঝড়ে বাতাসের সর্বোচ্চ একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৯ কিলোমিটার বা তার বেশি হতে পারে।

১১ নং যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন সংকেতঃ
আবহাওয়ার বিপদ সংকেত প্রদানকারী কর্তৃপক্ষের সাথে সকল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে এবং স্থানীয় আবহাওয়া কর্মকর্তা পরিস্থিতি দুর্যোগপূর্ণ বলে মনে করেন।

নদীবন্দর ও সমুদ্র বন্দরের জন্য সতর্কতা সংকেত আলাদা। তাই সতর্কতা সংকেত ভাল করে বুঝে চলার জন্য অনুরোধ করা হল।

মন্তব্য

আপলোডকারীর তথ্য

Mahadi Hasan Sumon

আপলোডকারীর সব সংবাদ